Floating Facebook Widget

যা মানলে কমবে বিদ্যুৎ বিল - Deshi News

১৪ মে, ২০১৯,মঙ্গলবার,দেশীনিউজ: এই গরমে একটু ঠাণ্ডা পাওয়ার জন্য কত কিছুই না করি আমরা। এসি, ফ্যান, কুলার থেকে শুরু করে আরো বহু পদ্ধতিতেই ঠাণ্ডার পরশ পেতে চায় সবাই। কিন্তু মাস শেষে তাতে বিদ্যুৎ বিলও আসবে আকাশ ছোঁয়া। অথচ একটু বুদ্ধি করলেই বাঁচানো যায় বিদ্যুৎ বিল। সে ক্ষেত্রে প্রথমে প্রয়োজন অভ্যাস বদল। জানেন কি, কোন কোন বিশেষ ভুলের দিকে নজর দিলেই একটু বেশি এসি চালানোর পরেও আপনার বিদ্যুতের বিল নিয়ন্ত্রণে থাকবে? দেখে নিন সে সব কৌশল।


ঘর থেকে বের হওয়ার সময় আলো, ফ্যান ও অন্যান্য বৈদ্যুতিক যন্ত্রের সুইচ বন্ধ করার অভ্যাস করুন। বাড়ি থেকে কিছু দিনের জন্য কোথাও বেড়াতে গেলে মেন সুইচ বন্ধ করতে ভুলবেন না।প্রথমেই সিদ্ধান্ত নিন অহেতুক অপচয় রোধ করবেন। বাড়িতে তিন-চারটি ঘর হলে অপচয় কমাতে সতর্ক থাকুন। যে ঘরটিতে আছেন, সেই ঘরটি ছাড়া অন্য ঘরে যেন আলো বা ফ্যান না চলে।

প্রাকৃতিক আলো-বাতাসে থাকার চেষ্টা করুন দিনের কিছুটা সময়। দিনের বেলায় যতটা কম সম্ভব আলো জ্বালান। ঘরের দেয়াল, ছাদ, পর্দা ও আসবাবপত্র সমূহে সাদা রঙের ব্যবহার ঘরকে উজ্জ্বল রাখে। এতে অনেক ক্ষেত্রে বিদ্যুৎ সাশ্রয় হয়ে থাকে ।

এই তো গেল প্রাথমিক কিছু সতর্কতা। এছাড়াও ঘরের প্রতিটি যন্ত্রের ব্যবহারেও সামান্য পরিবর্তন ঘটিয়ে আপনার বিদ্যুৎ বিলে কমানো যেতেই পারে।

ফ্রিজ

ফ্রিজে গরম খাবার রাখবেন না। খাবারের পরিমান বেশি না হলে ফ্রিজ খুব নিম্ন তাপমাত্রায় রাখা প্রয়োজনীয় নয়। মাসে এক দিন ফ্রিজ খালি করুন। ফ্রিজ পরিষ্কার করে রেগুলেটারকে বিশ্রাম দিন।

কম্পিউটার

একটি কম্পিউটার ২৪ ঘণ্টা চললে ফ্রিজের সমান বিদ্যুৎ খরচ হয়। আমরা না জেনেই এমন করে ফেলি। যদি কম্পিউটার অন রাখতেই হয় সে ক্ষেত্রে মনিটর বন্ধ রাখা উচিত। কারণ মনিটর একাই সিস্টেমের ৫০ শতাংশের বেশি বিদ্যুৎ ব্যবহার করে। কম্পিউটার স্লিপ-মোডে রাখলে ৪০ শতাংশ বিদ্যুৎ সাশ্রয় হতে পারে।

এসি

কুলিং ক্যাপাসিটি, পাওয়ার কনসাম্পশন এবং এনার্জি এফিসিয়েন্সির অনুপাতের উপরে এসির ১ স্টার, ২ স্টার, ৫ স্টার রেটিং দেয়া হয় এসিকে। যত বেশি স্টার তত কম বিদ্যুৎ ব্যয় হবে। পাশাপাশি স্টার রেটিং যত বেশি হবে ততই বাড়বে এসির দাম। তাই অনেকেই ফাইভ স্টার এসি কেনার চেষ্টা করেন। কিন্তু সব সময় ফাইভ স্টার এসি কেনার দরকার হয় না। এসি কতক্ষণ চলবে তার উপর নির্ভর করেই কিনতে হবে।

এর পাশাপাশি এসি চালানোর ব্যাপারে সতর্ক হন। এমনকী এই প্রচন্ড গরমেও সারা রাত এসি চালাতে হয় না। ৩ ঘণ্টা এসি চালিয়ে ঘর ঠাণ্ডা করে নিয়ে, ফ্যান চালিয়ে দিন। প্রতিদিন সারারাত এসি চালানো কমাতে পারলে, বিদ্যুৎ বিল অর্ধেক হয়ে যাবে।

আলো

ময়লা টিউব লাইট এবং বাল্ব প্রায় ৫০ শতাংশ আলো শোষণ করে নেয়। আপনার টিউব লাইট এবং বাল্ব নিয়মিত পরিষ্কার করুন। এলইডি আলো প্রচুর বিদ্যুৎ বাঁচায়। বাড়ির লাইটগুলো একে একে বদলে এলইডি করে নিন।

ইস্ত্রি

আগে থেকে পরিকল্পনা করে একবারে অনেকগুলো কাপড় একসঙ্গে ইস্ত্রি করুন। বিদ্যুৎ বাঁচবে অনেকটা।

চার্জার

ব্যাটারি চার্জার যেমন ল্যাপটপ, সেল ফোন এবং ডিজিটাল ক্যামেরা ইত্যাদির প্লাগ ইন করে রাখলে তারা শক্তি গ্রহণ করতে থাকে সুতরাং চার্জার বৈদ্যুতিক পয়েন্ট থেকে খুলে রাখা উচিত। অনেকেই চার্জার থেকে ফোন খোলেন কিন্তু সুইচটি আর বন্ধ করেন না। এমন হলে সচেতন হোন।

দেশীনিউজ/আবু হানিফ


অন্যান্য খবর