Floating Facebook Widget

প্রাথমিকে চাকরি পেতে করণীয় - Deshi News

২৪ মার্চ ২০১৯,রবিবার,দেশীনিউজ: এপ্রিলের প্রথম সপ্তাহে নিয়োগ পরীক্ষা শুরু হতে পারে বলে জানিয়েছে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর। তাই সবাই পরীক্ষার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছে। প্রাথমিক শিক্ষক হওয়ার ক্ষেত্রে আপনাকে প্রথমে এমসিকিউ পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে হবে (যদি পুরাতন নিয়মে পরীক্ষা হয়)। যদি আপনি এমসিকিউ বা রিটেন পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হোন তাহলে আপনাকে ভাইবা পরীক্ষার জন্য মুখোমুখি হতে হবে।


প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগে লিখিত পরীক্ষার নম্বর ৮০ এবং মৌখিক পরীক্ষার নম্বর ২০। এরমধ্যে বাংলায় ২০ নম্বর, বাংলা সাহিত্য ৩ নম্বর, বাংলা ব্যাকরণ ১৭ নম্বর, গনিত ২০ নম্বর, পাটিগনিত-৮/৯ নম্বর, বীজগনিত-৫/৬ নম্বর, জ্যামিতি-৫ নম্বর, ইংরেজি-২০ নম্বর, ইংরেজি- ২০ নম্বর, সাধারণ জ্ঞান- ২০ নম্বর, বাংলাদেশ ৭/৮ নম্বর, আন্তর্জাতিক- ৫/৬ নম্বর, সাম্প্রতিক ৫/৬ নম্বর, মৌখিক:-২০ নম্বর।
 পাঠকদের জন্য জানানো হবে কিভাবে প্রাথমিকে চাকরি পেতে প্রস্তুতি নিতে হবে।

লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হলে মৌখিক পরীক্ষার জন্য ডাকা হবে। লিখিত পরীক্ষা নেয়া হবে এমসিকিউ পদ্ধতিতে। বাংলা, গণিত, ইংরেজি ও সাধারণ জ্ঞানের প্রতিটি বিষয় থেকে ২০টি করে মোট ৮০টি নৈর্ব্যক্তিক প্রশ্ন থাকবে। প্রতিটি প্রশ্নের মান ১ প্রতিটি ভুল উত্তরের জন্য ০.২৫ নম্বর কাটা যাবে। চারটি উত্তর ভুল হলেই কাটা যাবে ১ নম্বর।

পরীক্ষার হলে করণীয়: প্রবেশপত্র সঙ্গে আনতে হবে। বই, উত্তরপত্র, নোট, কাগজপত্র, ক্যালকুলেটর, মোবাইল ফোনসহ ইলেকট্রিক ঘড়ি ও কোনো ধরনের ইলেকট্রিক ডিভাইস সঙ্গে রাখা যাবে না। উত্তরপত্র পূরণ করতে হবে সতর্কতার সঙ্গে। অসাবধানতাবশত ভুল হলে উত্তরপত্র বাতিল হতে পারে। কালো কালির বলপয়েন্ট কলম দিয়ে ওএমআর উত্তরপত্র পূরণ করা ভালো। প্রত্যেক প্রশ্নের উত্তরের জন্য একটি বৃত্তাকার ঘর ভরাট করতে হবে। একই প্রশ্নের উত্তরে একাধিক উত্তরটি বাতিল হবে ও নম্বর কাটা যাবে। কোনো প্রশ্নের উত্তর ভুল হলে তা কেটে অন্য কোনো ঘর ভরাট করা যাবে না। ওএমআর শিট ভাঁজ করা যাবে না, নির্ধারিত ঘর ছাড়া উত্তরপত্রের অন্য কোথাও দাগ দেয়া যাবে না। রোল নম্বর, প্রশ্নপত্রের সেট কোড, জেলা কোড, উপজেলা/থানা কোড, সেক্স কোড নম্বর অবশ্যই পূরণ করতে হবে, নইলে উত্তরপত্র বাতিল হবে। ওএমআর শিটে রোল নম্বরের ঘর পূরণ করার সময় রোল নম্বরের নিচের বৃত্তাকার ঘরগুলোতে সঠিক সংখ্যা কালো কালির বলপয়েন্ট কলম দ্বারা পুরো ভরাট করতে হবে। হাজিরা শিটে খাতার ক্রমিক নম্বর ও প্রশ্নের সেট নম্বর লিখে নির্ধারিত ঘরে প্রার্থীকে স্বাক্ষর করতে হবে।

দেশীনিউজ/শহিদ উল্লাহ বাবলু


শিক্ষাঙ্গন