Floating Facebook Widget

শ্যামপুরে নবজাতককে কবর থেকে তুলে জবাই ৫ কিশোরের - Deshi News

০৬ ফেব্রুয়ারী ২০১৯, বুধবারদেশীনিউজ:  কবর থেকে এক নবজাতকের লাশ তুলে তার গলা কেটে শ্মশানে নিয়ে পূজা দিয়েছে ৫ কিশোর। পরে স্থানীয়রা ওই কিশোরদের ধরে পুলিশে দিয়েছে।রাজধানীর শ্যামপুরে সোমবার দিবাগত রাত ২টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। গ্রেফতার কিশোররা বলেছে- তারা অলৌকিক শক্তির অধিকারী হওয়ার আশায় এ কাণ্ড ঘটিয়েছে।

ঘটনার বিবরণ দিয়ে পোস্তগোলা শ্মশানঘাট পরিচালনা কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক বিকে সমীর জানান, সোমবার গ্রিন রোডের একটি হাসপাতালে ঠাঁটারিবাজার এলাকার এক হিন্দু দম্পতির ছেলে জন্মগ্রহণ করে।

জন্মের আধা ঘণ্টা পরই সে হাসপাতালে মারা যায়। পরে সেদিন বেলা ৩টার দিকে পোস্তগোলা জাতীয় শ্মশানঘাটে তাকে মাটিচাপা দেয়া হয়।

রাত আনুমানিক ২টার দিকে ১৪-১৫ বছরের কয়েকজন হিন্দু কিশোর মাটি দেয়া ওই নবজাতকের শ্মশান থেকে তুলে তাকে জবাই করে ওই শ্মশানে পূজা দেয়।

স্থানীয়রা এ ঘটনা দেখে তাদের দ্রুত আটক করে শ্যামপুর থানায় সোপর্দ করা হয়। ওই শ্মশানের মোহর পলাশ চক্রবর্তী বাদী হয়ে ৫ কিশোরের বিরুদ্ধে মামলা করেন।

পোস্তগোলা শ্মশানঘাট পরিচালনা কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক বিকে সমীর আরও জানান, হিন্দু ধর্মে শিশুর লাশ মাটিচাপা দেয়ার পর উত্তোলন করে তার গলা কেটে পূজা দেয়ার কোনো রীতি নেই।

শ্যামপুর থানার ওসি মিজানুর রহমান জানান, এ ঘটনায় পাঁচ কিশোরকে গ্রেফতার করা হয়েছে। আধ্যাত্মিক শক্তি লাভের আশায় কিশোররা এ বিভৎস কাণ্ড ঘটিয়েছে বলে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে পুলিশের কাছে স্বীকার করেছে।

দেশীনিউজ/শহিদ উল্লাহ বাবলু


অপরাধ জগৎ